সোলাইমানির জানাযায় লক্ষ জনতার এক কন্ঠ, ‘প্রতিশোধ, প্রতিশোধ’

ইরানের রাজধানী তেহরানে জেনারেল কাসেম সোলাইমানির জানাযায় ঢল নামে লাখো মানুষের। সেখানে কান্নায় ভেঙে পড়েন ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি। জানাযায় সোলাইমানির কন্যা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের জন্য কালো দিন অপেক্ষা করছে। জনতার ঢলে স্লোগান ওঠে,‘প্রতিশোধ, প্রতিশোধ’ আওয়াজ।

জানাযায় জনস্রোত

শুক্রবার এক ড্রোন হামলায় ইরানের কুদস বাহিনীর প্রধান জেনারেল কাসেম সোলাইমানিকে হত্যা করে যুক্তরাষ্ট্রের বিমানবাহিনী। হত্যার তীব্র নিন্দা জানিয়ে তিনদিনের রাষ্ট্রীয় শোক ঘোষণা করে ইরান সরকার। ইরাক থেকে সোলাইমানির লাশ আনার পর সোমবার রাজধানী তেহরানে প্রথম জানাযা হয়। ইরানের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যম জানায়, জানাযায় ১০ লাখেরও বেশি মানুষের অংশ নিয়েছে।

ডুকরে কেঁদে ওঠেন আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি

তিনদিনের শোক শেষে অনুষ্ঠিত জেনারেল সোলাইমানির প্রথম জানাযা পড়ান ইরানের সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি। সোলাইমানির কফিনের ওপর তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন। এ সময় প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি, কুদস বাহিনীর নতুন প্রধান ইসমাইল কা’নিসহ ইরানের অন্য অনেক শীর্ষ নেতাও খামেনির পাশে ছিলেন।

জেনারেল সোলাইমানির কন্যার হুঁশিয়ারি

ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে জেনারেল কাসেম সোলাইমানির কন্যা জয়নাব সোলাইমানি বলেন,‘এখন থেকে মধ্যপ্রাচ্যে যুক্তরাষ্ট্রের যে সেনা সদস্যরা আছেন তাদের পরিবার সন্তানের মৃত্যুর খবরের অপেক্ষায় থাকবেন।’ তার বাবাকে হত্যার নির্দেশ দেয়া ডোনাল্ড ট্রাম্পের উদ্দেশ্যে তিনি বলেন,‘উন্মাদ ট্রাম্প, ভেবো না আমার বাবা শহীদ হওয়ায় সব শেষ হয়ে গেছে।’ তিনি আরো বলেন, যুক্তরাষ্ট্র আর তার মিত্র ইসরাইলের জন্য কালো দিন অপেক্ষা করছে।

যুক্তরাষ্ট্রকে তাড়াবো

রাজধানী তেহরানে জেনারেল সোলাইমানির জানাযা শুরুর আগে রাষ্ট্রীয় বেতারকে সোলাইমানির মৃত্যুর পর কুদস বাহিনীর দায়িত্ব নেয়া ইসমাইল কা’নিও প্রতিশোধের ঘোষণা দিয়ে বলেছেন,‘আমরা আমাদের বাহিনী নিয়ে শহীদ সোলাইমানির দেখানো পথেই এগিয়ে যাওয়ার প্রতিজ্ঞা করছি। এ অঞ্চল থেকে আমরা যুক্তরাষ্ট্রকে তাড়াবো, কারণ, এটাই উপযুক্ত ক্ষতিপূরণ।’

‘প্রতিশোধ, প্রতিশোধ’

জেনারেল কাসেম সোলাইমানির জানাযায় দশ লাখেরও বেশি মানুষ অংশ নিয়েছে জানায় ইরানের রাষ্ট্রীয় টেলিভিশন। জনস্রোত থেকে বারবার ‘প্রতিশোধ, প্রতিশোধ’ স্লোগান ওঠে।

পরবর্তী জানাযা কেরমানে

মঙ্গলবার জেনারেল সোলাইমানির দ্বিতীয় জানাযা অনুষ্ঠিত হবে তার নিজের শহর কেরমান-এ। সূত্র : ডয়চে ভেলে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *