সরিষাবাড়ীতে বিএনপির ২০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা

জামালপুরের সরিষাবাড়ীতে আওয়ামী লীগের নির্বাচনী পথসভায় হামলার অভিযোগে বিশেষ ক্ষমতা আইনে বিএনপির প্রায় ২০০ নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করা হয়েছে। যুবলীগ নেতা মুকুল হোসেন বাদি হয়ে সরিষাবাড়ী থানায় এই মামলা দায়ের করেন।

থানায় দায়েরকৃত মামলা সূত্রে জানা যায়, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও পোগলদিঘা ইউনিয়ন বিএনপির আহ্বায়ক মামুন ফকির, সাবেক পৌর মেয়র ও উপজেলা যুবদলের সভাপতি একেএম ফয়েজুল কবীর তালুকদার শাহীনসহ ২২জন এবং অজ্ঞাত আরো ১০০-১৫০ জনকে এই মামলায় আসামী করা হয়েছে। আসামিরা হলেন বিএনপির যুগ্ম-সাংগঠনিক সম্পাদক রুহুল আমিন সেলিম, উপজেলা ছাত্রদলের সভাপতি হাফিজুর রহমান মিলন, সাবেক ছাত্রদল সভাপতি প্রভাষক শহিদুল্লাহ শহিদ ভিপি, পৌর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক নিপ্পন মিয়া প্রমুখ।

এদিকে মামলা দায়েরর সংবাদে বিএনপির নেতাকর্মীরা গ্রেফতার আতংকে বাড়িঘর ছেড়ে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।

জানা গেছে, গত ২৪ ডিসেম্বর সরিষাবাড়ী পৌরসভার আরামনগর বাজারে আওয়ামী লীগের মনোনীত নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ডা. মুরাদ হাসানের নির্বাচনী পথসভাকে কেন্দ্র করে বিএনপি ও আওয়ামী লীগের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। এ সময় উপজেলা বিএনপির কার্যালয়ে অগ্নিসংযোগ ঘটনাসহ অন্তত ৩০টি ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও ৭টি মোটর সাইকেল ভাঙচুরের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় উপজেলা আওয়ামী লীগ ও বিএনপি পরস্পরবিরোধী অভিযোগ তুলেছেন। অবশেষে নির্বাচনী পথসভায় হামলার অভিযোগ এনে বিশেষ ক্ষমতা আইনে মামলা দায়ের করেন যুবলীগ নেতা মুকুল হোসেন।

এ ব্যাপারে সরিষাবাড়ী থানার এসআই ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা গোলাম মোস্তফা জানান,‘আওয়ামী লীগের নির্বাচনী পথসভায় হামলার অভিযোগে মামলাটি দায়ের করা হয়েছে। মামলার কোনো আসামি এখনো আটক হয়নি, তাদের আটক করতে অভিযান অব্যাহত আছে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

স্বাগতম

আপনাদের অনুপ্রেরণায় আমাদের পথচলা

অনলাইন নিউজ পোর্টাল সংবাদ সারদিন এর সাথে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

shares