‘বন্দুকযুদ্ধে’ ধর্ষক নিহত : অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার

রংপুরের গঙ্গাচড়ার পূর্ব ইচলীতে সোমবার রাতে পুলিশের সাথে ‘বন্দুকযুদ্ধে’এক যুবক নিহত হয়েছে। নিহত যুবক একজন তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী, অপহরণকারী ও ধর্ষক বলে জানিয়েছে পুলিশ। নিহত যুবকের নাম শহিদুল ইসলাম সুমন (৩৫)। বন্দুকযুদ্ধের পর পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে একটি সুটার গান ও ২২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করে।

রংপুর জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (এ সার্কেল) সাইফুর রহমান সাইফ জানান, পুলিশের তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী, অপহরণকারী ও ধর্ষক শহিদুল ইসলাম সুমনকে গঙ্গাচড়া থানা পুলিশ গ্রেফতার করে। সে লালমনিরহাট জেলার কালিগঞ্জের রুদ্রেশ্বর গ্রামের মহেশার আলীর পুত্র। গ্রেফতারের পর তার স্বীকারোক্তি অনুয়ায়ী সোমবার রাতে পুলিশের একটি দল অস্ত্র উদ্ধারের জন্য তাকে নিয়ে গঙ্গাচড়া উপজেলার মহিপুর ইউনিয়নের চর ইচলী এলাকায় যায়।

পুলিশের উপস্থিতি টের পেয়ে সেখানে আগে থেকে ওঁৎ পেতে থাকা সুমনের সহযোগিরা পুলিশের ওপর গুলিবর্ষণ করে। এসময় পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। এতে ঘটনাস্থলে ক্রসফায়ারে শহিদুল ইসলাম সুমন নিহত হয়। অন্যান্যরা পালিয়ে যায়। বন্দুকযুদ্ধে পুলিশের পাঁচ সদস্য আহত হয়। ঘটনাস্থল থেকে একটি সুটার গান ও ২২ পিস ইয়াবা ট্যাবলেট উদ্ধার করা হয়েছে। নিহত সুমনের লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রংপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশের এই কর্মকর্তা জানান, নিহত সুমন একজন কুখ্যাত সন্ত্রাসী, মাদক ব্যবসায়ী ও নারী অপহরণকারী। সে বিভিন্ন সময় অনেক নারীকে অপহরণ করে ধর্ষণ করেছে। তার বিরুদ্ধে বিভিন্ন থানায় এ ধরণের ১৪টি মামলা আছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

স্বাগতম

আপনাদের অনুপ্রেরণায় আমাদের পথচলা

অনলাইন নিউজ পোর্টাল সংবাদ সারদিন এর সাথে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

shares