বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কারণে ক্ষয়ক্ষতি কম হয়েছে : হানিফ

বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কারণে আগাম তথ্য পেয়েছিলাম বিধায় আমাদের সরকার ও দলীয়ভাবে ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলায় সর্বাত্মক প্রস্তুতি গ্রহণ করেছিলাম। যার ফলে ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি।

শনিবার আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমন্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে ঘুর্ণিঝড় ফণী নিয়ে দলীয় মনিটরিং সেলের কর্মকান্ড পর্যবেক্ষণ প্রসঙ্গে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

মাহবুবউল আলম হানিফ বলেন, আমরা দেশবাসীর পক্ষ থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ধন্যবাদ জানাই। গত ১০ বছরে তার শাসনামলে সব দিকে দেশের উন্নয়ন করেছে। বিশেষ করে উন্নয়নের একটি বড় অংশ হচ্ছে মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ। বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের মাধ্যমে গভীর সমুদ্রে ২ হাজার কিলোমিটার দূরে শুরু হওয়া ঘূর্ণিঝড়ের খবর আমাদের দেশের আবহাওয়া অধিদপ্তর সংগ্রহ করতে পেরেছে। ফলে ক্ষয়ক্ষতি কমিয়ে আনা সম্ভব হয়েছে। এই ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলা সরকারের সকল প্রতিষ্ঠান সমন্বয় করে কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিদেশে বসে সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছেন। সরকার এবং দলের ক্ষতিগ্রস্ত সকলকে পুনর্বাসন করা হবে বলেও জানান হানিফ।

ঘুর্ণিঝড় ফণী মোকাবেলায় সরকার কোন পদক্ষেপ নেইনি বিএনপি নেতাদের এমন বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করে হানিফ বলেন, আমি গতকালকেও বলেছিলাম, যারা এই ধরনের কথাবার্তা বলছেন, তাদেরকে নোংরা ভাষায় কিছু বলা যায় না। তাই তাদেরকে অনেকেই পাগলের প্রলাপের সাথে তুলনা করছেন। বিএনপি আসলে রাজনীতি থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে, ছিটকে পড়েছে। বিএনপি আজকে অভ্যন্তরীণ কোন্দলে জর্জরিত। তারা নিজেদের সমস্যা ধামাচাপা দেওয়ার জন্যই সরকারের কর্মকান্ড নিয়ে বিভিন্ন মিথ্যাচার করছে। তারা আবোল-তাবোল কথাবার্তা বলে বিভ্রান্তি ছড়িয়ে নিজেদের ব্যর্থতা চাপা দেওয়ার চেষ্টা করছে।

তিনি জানান, গতকাল থেকে এখন পর্যন্ত পর্যবেক্ষণ সেলে ১০০টি কল এসেছে। তারা তাদের এলাকার বিভিন্ন বিষয় নিয়ে আমাদের সাথে যোগাযোগ করেছেন। তারা মনে করেছেন, সরকার এবং আওয়ামী লীগ তাদের জন্য যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে। তাই মানুষের জন্য আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নাই।

আমরা বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্ত এলাকার তথ্য উপাত্ত নিচ্ছি। ঘুর্ণিঝড় ফণী শেষ হলে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় আমাদের টিম যাবে এবং সরকার ও দলের পক্ষ থেকে তাদের পুনর্বাসনের পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি ও জাহাঙ্গীর কবির নানক, সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন, একেএম এনামুল হক শামীম, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক সুজিত রায় নন্দী, তথ্য ও গবেষণা সম্পাদক আফজাল হোসেন, কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ফরিদুন্নাহার লাইলী, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা: রোকেয়া সুলতানা, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, উপ-দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, কার্যনির্বাহী সদস্য এসএম কামাল হোসেন প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

স্বাগতম

আপনাদের অনুপ্রেরণায় আমাদের পথচলা

অনলাইন নিউজ পোর্টাল সংবাদ সারদিন এর সাথে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

shares