জৈন্তাপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত ২ আহত ১০

সিলেট তামাবিল মহাসড়কের জৈন্তাপুর বৈঠাখাল এলাকায় মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় দুই জন নিহত ও দশ জন আহতের খবর পাওয়া গেছে।

এলাকাবাসী সূত্রে যানাযায় ১ মে বুধবার দুপুর ১২টায় সিলেট তামাবিল মহাসড়কের জৈন্তাপুর বৈঠাখাল নামক স্থানে জাফলং থেকে ছেড়ে আসা সিলেটগামী দুটি মাইক্রোবাস প্রতিযোগিতা মাধ্যমে একে অপরকে অতিক্রম করতে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে একটি মাইক্রোবাস দুর্ঘটনায় কবলিত হয়।

ঘটনায়স্থলে দুইশিশু নিহত হয় এবং ১০জন আহত হয়। স্থানীয় জনগণ দ্রুত এগিয়ে এসে আহতদের উদ্ধার করে জৈন্তাপুর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়।

নিহত দুজন হলো জৈন্তাপুর উপজেলার ফুলবাড় গ্রামের শওকত আলীর মেয়ে লুবনা বেগম (১২) ও ছোট বোন অহনা বেগম (৭)। আহতরা হলো গোলাপগঞ্জ উপজেলার মো. জাহিদ(২৮) ও সেলিনা বেগম(২৫), সদর সিলেটের নয়াগ্রামের শিফা বেগম (৩৫) ও তার ছেলে শরিফ আহমদ(১৩), নারায়ণগঞ্জ জেলার সজিব আহমদ (২৫), নরসিংদী জেলার আলাল মিয়া (১৮), হবিগঞ্জ জেলার শিবলু মিয়া (৩০), জৈন্তাপুর উপজেলার ফুলবাড়ী গ্রামের সোহাগ আহমদ (৩), গোয়াইনঘাট উপজেলার মোহাম্মদপুর গ্রামের নাঈম মিয়া (১০) ও সাইফুল ইসলাম (২৬)।
আহতদের মধ্যে আশঙ্কাজনক অবস্থায় সেলিনা, জাহিদ ও সাইফুলকে সিলেট এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। ঘটনার পর পর স্থানীয় জনগণ সড়ক অবরোধ করে রাখে। এ ঘটনার সংবাদ পেয়ে দ্রুত ঘটনাস্থলে জৈন্তাপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান কামাল আহমদ ও জৈন্তাপুর মডেল থানার পুলিশ ও এলাকাবাসীর সহায়তায় রাস্তার অবরোধ তুলে নেন এবং নিহতদের লাশ উদ্ধার করে জৈন্তাপুর মডেল থানায় নিয়ে আসা হয়। নিহতের লাশ জৈন্তাপুর মডেল থানা পুলিশের হেফাজতে রয়েছে।

এবিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খাঁন মো. মাঈনুল জাকির বলেন, ঘটনার পর পর ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স এর লোকজন ও পুলিশ সদস্যরা গিয়ে এলাকাবাসীর সহযোগিতায় উত্তেজিত জনতাকে শান্ত করেন এবং সিলেট তামাবিল মহাসড়কে যান চলাচল স্বাভাবিক করেন।

জৈন্তাপুরে সারী নদীতে পাহাড়ি ঢলে পিতা-পুত্র নিখোঁজ

জৈন্তাপুরের লালাখালের সারী নদীতে আকস্মিক পাহাড়ি ঢলে পিতা-পুত্র নিখোঁজ রয়েছে।

এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায় ১ মে বুধবার ভোরে সারী নদীতে কাঠ সংগ্রহ করতে গেলে আকস্মিক উপর থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে নৌকা তলিয়ে যায়। এসময় পিতা-পুত্র নিখোঁজ হন।
নিখোঁজরা হলেন, উপজেলার নিজপাট ইউনিয়নের কালিঞ্জবাড়ী গ্রামের ইসমাইল আলীর ছেলে আলা উদ্দিন (৩৫) ও তার ছেলে সাকিল আহমদ (১২)।

অপরদিকে সারী বেড়িবাঁধ প্রকল্পের অফিস সূত্রে জানা যায় সারী নদীর পানি বিপদ সীমার ৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

এবিষয়ে জৈন্তাপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ খাঁন মো. মাঈনুল জাকির বলেন, স্থানীয় সূত্রে নিখোঁজ হওয়ার সংবাদ পেয়েছি এবং তাদের সন্ধানে লোক নিয়োজিত করা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

স্বাগতম

আপনাদের অনুপ্রেরণায় আমাদের পথচলা

অনলাইন নিউজ পোর্টাল সংবাদ সারদিন এর সাথে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

shares