বিজয়ের মাসেই সংবিধান প্রণেতা ও পতাকা উত্তোলকের উপর হামলা!

মিরপুরে শহীদ বুদ্ধিজীবী স্মৃতিসৌধে শ্রদ্ধা জানিয়ে ফেরার পথে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের শীর্ষ নেতা ড. কামাল ও আ স ম আবদুর রবের গাড়িতে হামলা করা হয়েছে। মিরপুরের আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিনাভোটে নির্বাচিত সংসদ সদস্য আসলামুল হকের সমর্থকেরা তাদের গাড়িবহরে হামলা চালান বলে জানিয়েছেন প্রত্যক্ষদশীরা। হামলায় বেশ কয়েকটি গাড়ি ভাঙচুর করা হয়েছে। হামলার ঘটনায় আ স ম আবদুর রবের গাড়ির চালক আহত হয়েছেন।

ঘটনাস্থলের আশে-পাশে আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা উপস্থিত থাকলেও তারা সময়মতো পদক্ষেপ নিয়েছেন কিনা তা খতিয়ে দেখতে হবে।

নির্বাচনী তফসিল ঘোষণার পর থেকেই সারা দেশে বিএনপিসহ বিরোধীদলের নেতাকর্মীসহ প্রার্থীদের উপর হামলা করে তাদেরকে নির্বাচন থেকে দূরে রাখার চেষ্টা করছেন ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা।

খোদ মির্জা ফখরুল ইসলাম, মঈন খান ও মওদুদ আহমেদের নির্বাচনী পথসভা ও গাড়ি বহরে হামলা করা হয়েছে। সারা দেশে হাজার হাজার নেতাকর্মীকে বিনা মামলায়, গায়েবি মামলায় গ্রেফতার করা হচ্ছে। বিএনপির বেশ কয়েকজন প্রার্থীকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাদের জামিনও হচ্ছে না।

নির্বাচনী প্রচারণায় নামলেই ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীরা বিএনপিসহ বিরোধীদলের নেতাকর্মী ও সাধারণ মানুষকে আটক করছে। নির্বাচনের লেভেল প্লেয়িং ফিল্ডতো অনেক দুরের বিষয়। এভাবে চলতে থাকলে নির্বাচনে থাকা বিএনপির জন্য কষ্টকর হবে।

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুলের উপর হামলার পর খোদ প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, আমরা তার উপর হামলার খবরে বিব্রত। সিইসির এই অসহায় আত্মসমর্পনের পর নির্বাচনের মাঠ ও সার্বিক পরিস্থিতি কেমন তা সহজেই অনুমেয়।

বিজয়ের মাসে বুদ্ধিজীবী দিবসের অনুষ্টানস্থলে দেশের প্রবীণ নাগরিক ও একটি রাজনৈতিক জোটের শীর্ষ নেতাদের উপর হামলা কোন শুভ লক্ষন নয়। এভাবে চলতে থাকলে দেশে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ এবং অংশীদারিত্বমূলক নির্বাচন সম্ভন না।

বিজয়ের মাসে এসব রাজনৈতিক অপসংস্কৃতিকে প্রশয় দেয়া যাবে না। আজ শীর্ষ রাজনীতিবীদদের উপর হামলা চালানো হচ্ছে। কাল যে আপনাদের উপর হবে না তার কি নিশ্চয়তা আছে। তাই দয়া করে এরকম গর্হিত কাজ বন্ধ করার ব্যবস্থা করুন।

নির্বাচন কমিশন তাদের উপর অর্পিত দায়িত্ব ও কর্তব্য পালন করবে এটাই প্রত্যাশা। তাদেরকে দেয়া প্রদত্ত ক্ষমতা প্রয়োগ করে যারা ড. কামাল হোসেন, আ স ম রব, মির্জা ফখরুলসহ শীর্ষ নেতাদের উপর হামলা করেছে তাদেরকে আইনের আওতায় এনে বিচার করতে হবে।

হাসান আমান, ঢাকা থেকে (লেখকের নিজস্ব অভিমত,  এরজন্য নয়া দিগন্ত কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

স্বাগতম

আপনাদের অনুপ্রেরণায় আমাদের পথচলা

অনলাইন নিউজ পোর্টাল সংবাদ সারদিন এর সাথে থাকার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

shares